বৃহস্পতিবার | ১৩ জুন ২০২৪
Cambrian

বাঘের দেহে করোনা শনাক্ত

spot_img
spot_img
spot_img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তার চিড়িয়াখানায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছে দুটি বাঘ। সংক্রমণ শনাক্ত হলেও বাঘ দুটির শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল–জাজিরা রোববার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত সুমাত্রান পুরুষ বাঘ দুটোর নাম তিনো ও হারি। তিনোর বয়স ৯ বছর। হারির ১২ বছর। বাঘ দুটোর আবাস জাকার্তার রাগুনান চিড়িয়াখানায়। করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর বাঘ দুটোকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাকার্তা পার্ক অ্যান্ড আরবান ফরেস্ট এজেন্সির প্রধান সুজি মারসিতাওয়াতি।
গত ৯ জুলাই তিনোর শরীরে প্রথম করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। এ সময় হাঁচি দিচ্ছিল বাঘটি। নিশ্বাস নিতেও সমস্যা হচ্ছিল সেটির। এর দুই দিন পর একই উপসর্গ দেখা দেয় হারির। বাঘ দুটির শরীর থেকে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ১৪ জুলাই ফলাফল এলে জানা যায়, দুটো বাঘই করোনায় ভুগছে। ইন্দোনেশিয়ায় কোনো পশুর শরীরে কোভিড–১৯ শনাক্তের ঘটনা এটাই প্রথম।
সুজি মারসিতাওয়াতি বলেন, করোনায় আক্রান্ত বাঘ দুটোকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর থেকে অ্যান্টিবায়োটিক ও মাল্টিভিটামিন খাওয়ানো হয়েছে। ১২ দিন পর থেকে বাঘ দুটোর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে শুরু করেছে। আশা করছি, শিগগির বাঘ দুটো পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবে।
করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে জাকার্তাসহ পুরো ইন্দোনেশিয়ায় কঠোর বিধিনিষেধ চলছে। চিড়িয়াখানায় দর্শনার্থী সমাগম বন্ধ রয়েছে। এরপরও বাঘ দুটো কীভাবে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে, তা নিশ্চিত করা যায়নি। করোনায় সংক্রমিত বাঘ দুটোর চিকিৎসা ও পরিচর্যায় নিয়োজিতদের সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। তাঁদের কেউ সংক্রমিত হননি।
সুমাত্রান, জাভান ও বালি—একসময় ইন্দোনেশিয়ায় এই তিন প্রজাতির বাঘ পাওয়া যেত। এখন দেশটিতে শুধু ৬০০ সুমাত্রান বাঘ রয়েছে। জাভান ও বালি প্রজাতির বাঘ বিলুপ্ত হয়ে গেছে।
এদিকে করোনার ডেলটা ধরনের বিরুদ্ধে তুমুল লড়াই চালাতে হচ্ছে ইন্দোনেশিয়াবাসীকে। জনবহুল দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৩৪ লাখের বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ