বুধবার | ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Cambrian

বঙ্গবন্ধুর বিচার বন্ধে তাজউদ্দীনের আবেদন, হ্যারিসন এবং…

spot_img
spot_img
spot_img

ক্র্যাবনিউজবিডি ডেস্ক
আজ ২২ জুলাই। ১৯৭১ সালের এই দিনে স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ মুজিবনগর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেন, পাকিস্তানের সামরিক আদালতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যে বিচারের হুমকি ইয়াহিয়া খান দিয়েছেন, সে বিচার হলে তা প্রহসন ছাড়া আর কিছু হবে না। বিশ্বের রাষ্ট্রগুলোর কর্তব্য নিজ নিজ সরকার এবং জাতিসংঘের মাধ্যমে সমষ্টিগতভাবে এ প্রহসন বন্ধ করা এবং ইয়াহিয়াকে তাঁর চক্রান্ত পরিত্যাগ করে বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য করা। বিবৃতিতে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জীবন শুধু বাংলাদেশের অধিবাসীদের জন্যই নয়, এই অঞ্চলের শান্তি ও স্থায়িত্বের জন্যও প্রয়োজনীয়।
তাজউদ্দীন আহমদ মুজিবনগরে সমবেত কিছু জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের সদস্যদের উদ্দেশে বলেন, বাংলাদেশ সরকারের সমস্ত পরিকল্পনার মূল লক্ষ্য দেশ উদ্ধার।
একদল মুক্তিযোদ্ধা এই দিন টাঙ্গাইলের বাশাইল থানার কাছে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একটি টহল দলকে আক্রমণ করলে কিছু পাকিস্তানি সেনা হতাহত হয়। কিছু অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ মুক্তিযোদ্ধাদের হস্তগত হয়।

নিউইয়র্কে কনসার্ট
রয়টার্স জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ভারতে আশ্রয় নেওয়া বাংলাদেশি শরণার্থীদের সাহায্যার্থে এই দিন এক কনসার্টে সেতারশিল্পী পণ্ডিত রবিশঙ্কর এবং বিটলশিল্পী জর্জ হ্যারিসন ও রিঙ্গো স্টার অংশ নেন। এই কনসার্টের জন্য ১০ ঘণ্টায় ৩৬ হাজারের বেশি টিকিট বিক্রি হয়।

গোপন বার্তা, রুদ্ধদ্বার বৈঠক
জাতিসংঘের মহাসচিব উ থান্ট নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যদের কাছে পাঠানো এক গোপন বার্তায় ভারত-পাকিস্তান পরিস্থিতি এবং বাংলাদেশের ব্যাপারে দুই দেশের মধ্যে সশস্ত্র সংঘর্ষের সম্ভাবনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। একই দিনে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত সমর সেন উ থান্টের সঙ্গে দেখা করে রুদ্ধদ্বার আলোচনা করেন।

শরণার্থী প্রত্যাবর্তন
সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় কূটনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল এই দিন সাংবাদিকদের জানায়, পাকিস্তান শরণার্থী প্রত্যাবর্তন–সংক্রান্ত জাতিসংঘের একটি প্রস্তাব গ্রহণ করেছে। এই প্রস্তাবে শরণার্থীদের পূর্ব পাকিস্তানে প্রত্যাবর্তনের সুবিধার্থে ভারত ও পাকিস্তানে দুই দেশে জাতিসংঘের বেসামরিক লোক মোতায়েনের কথা বলা হয়েছে।

কানাডায় বিক্ষোভ
কানাডার রাজধানী অটোয়ায় সফররত পাকিস্তানি প্রতিনিধি হামিদুল হক চৌধুরী ও মাহমুদ আলী সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার সময় তাদের বিরুদ্ধে বাঙালিরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। হামিদুল হক চৌধুরী পাকিস্তানের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও কনভেনশন মুসলিম লীগের সভাপতি এবং মাহমুদ আলী পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) সহসভাপতি। সংবাদ সম্মেলনে হামিদুল হক চৌধুরী বলেন, পূর্ব পাকিস্তানে গণহত্যা হয়নি। সুসংঘবদ্ধ কয়েকটি দল পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মিথ্যা প্রচার করছে।

‘বাংলাদেশে চলছে স্বাধীনতার সংগ্রাম’
ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দিল্লিতে বলেন, বাংলাদেশের সমস্যা কোনো দলীয় বা ধর্মীয় সমস্যা নয়। এটি এখন স্বাধীনতার জন্য সংগ্রামরত একটি দেশ। তাদের সমস্যা যত বড়ই হোক না কেন, কোনো দেশ যদি নিজেদের বাস্তবতা সম্পর্কে সজাগ থাকে, তাহলে তার সমাধান হবেই। আর কোনো দেশ এর আগে এত বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়নি।

দিল্লিতে সরকারিভাবে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ২৬ জুলাই বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গে বসবেন। ইয়াহিয়া খান ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার যে হুমকি দিয়েছেন, তা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে।
ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কলকাতায় বাংলাদেশ তথ্যানুসন্ধান কমিটির সম্পাদক শৈবালকুমার গুপ্ত জানান, বাংলাদেশের সাম্প্রতিক ঘটনাবলি সম্পর্কে নিরপেক্ষ প্রতিবেদন তৈরির জন্য ড. রমেশচন্দ্র মজুমদারের সভাপতিত্বে একটি অরাজনৈতিক তথ্যানুসন্ধান কমিটি গঠিত হয়েছে।

পাকিস্তান ও অবরুদ্ধ বাংলাদেশে
অবরুদ্ধ বাংলাদেশ সফররত ইসলামিক সেক্রেটারিয়েটের মহাসচিব টুংকু আবদুর রহমান ঢাকায় সামরিক গভর্নর লেফটেন্যান্ট জেনারেল টিক্কা খান এবং ঢাকায় নিয়োজিত জাতিসংঘের সাহায্য ও শরণার্থীবিষয়ক প্রতিনিধির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে জর্ডান, ইরান, কুয়েত ও আফগানিস্তানের প্রতিনিধিরা ছিলেন। টুংকু আবদুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাসহ ঢাকা শহরের কিছু এলাকা পরিদর্শন করেন।

রাজাকারদের যেকোনো ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করার ক্ষমতা দিয়ে পূর্ব পাকিস্তানের সামরিক কর্তৃপক্ষ এই দিন একটি সামরিক আদেশ জারি করে।

আওয়ামী লীগের যেসব সদস্য গোলযোগে অংশ নিয়েছেন, তাঁদের আসন বাতিল করে সে জায়গায় ১৯৭০ সালের নির্বাচনে দ্বিতীয় স্থান অধিকারীদের নির্বাচিত বলে ঘোষণা করার জন্য জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমির মিয়া মোহাম্মদ তোফায়েল করাচিতে এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের কাছে দাবি জানান।

সূত্র: বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধ: সেক্টরভিত্তিক ইতিহাস, সেক্টর এগারো; ইত্তেফাক, ২৩ জুলাই ১৯৭১; আনন্দবাজার পত্রিকা, ভারত, ২৩ ও ২৪ জুলাই ১৯৭১ (লেখাটি প্রথম আলো থেকে নেয়া)

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ