রবিবার | ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Cambrian

পরী মণি-রাজের দেয়া তথ্য যাচাই চলছে, মামলা ডিবিতে

spot_img
spot_img
spot_img

নিজস্ব প্রতিবেদক
চিত্রনায়িকা পরী মণিসহ চারজনের বিরুদ্ধে বনানী থানায় দায়ের হওয়া মাদক মামলা দুটির তদন্তভার পেয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। শুক্রবার (৬ আগস্ট) সকালে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে নড়াইলের মেয়ে শামসুন্নাহার স্মৃতি ঢাকার চলচ্চিত্রে পরীমনি নামে অভিষিক্ত হন।
অন্যদিকে পরী মণি, নজরুল ইসলাম রাজসহ তাদের অপর দুই সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছে র‌্যাব। ডিজে পার্টি, বিদেশে প্লেজার পার্টি, লেটনাইট পার্টিসহ
নানান অবৈধ কর্মে জড়িত সিন্ডকেট সদস্য সম্পর্কে গ্রেপ্তাররা যা জানিয়েছেন, তা যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। এমন তথ্যই জানিয়েছেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন। তার ভাষ্য হচ্ছে, পরী মণি, নজরুল রাজসহ সংশ্লিষ্টরা যে তত্য দিয়েছেন, তাতে অন্য কাউকে ফাঁসাতে, ব্যক্তিস্বার্থে বা অসৎ কোনো উদ্দশ্যে আছে কীনা- তা যাচাই চলছে।
এদিকে মামলা ডিবিতে হস্তান্তরের বিষয়ে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম বলেন, ‘র‌্যাব যে তিনটি মামলা করেছে, তার মধ্যে পর্নগ্রাফি আইনে করা মামলা ছাড়া দুটি মামলার তদন্তভার গোয়েন্দা পুলিশ পেয়েছে।’

এর আগে বুধবার (৪ আগস্ট) ঢাকার বনানীতে পরীমণির বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এই অভিনেত্রী এবং তার সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুকে আটক করে নিয়ে যায় র‌্যাব।
পরদিন বৃহস্পতিবার এক প্রেসব্রিফিংয়ে র‍্যাব জানায়, পরীমণির বাসায় একটা মিনি বার ছিল এবং তার বাসায় নিয়মিত পার্টি হতো। সেই পার্টিতে মদসহ সব ধরনের মাদক সাপ্লাই দিতো নজরুল ইসলাম রাজ। রাজের নেতৃত্বে একটা সিন্ডিকেট ছিল, যাদের কাজই হলো উঠতি বয়সী তরুণীদের দিয়ে নানারকম অপকর্ম করানো। পরীমণিকে আটকের আগেরদিন মঙ্গলবার মিশুক ও জিসান নামে দুজনকে গ্রেফতারের পর তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরীমণি ও রাজের বাসায় অভিযান চালানো হয়।
পরীমণি ও রাজসহ গ্রেফতার চারজনের বিরুদ্ধে বনানী থানায় মাদকের দুটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা দুটিতে চার আসামি ৪দিন করে রিমান্ডে রয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় চারজনকে আদালতে তোলা হলে মাদক আইনের দুই মামলায় চারজনকে চার দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন ঢাকার মহানগর হাকিম মো. মামুনুর রশিদ।
পরীমনির পক্ষে তার আইনজীবীরা রিমান্ড বাতিল করে জামিনের আবেদন জানালেও তা নাকচ করে দেন বিচারক।
২০১৫ সালে নড়াইলের মেয়ে শামসুন্নাহার স্মৃতি ঢাকার চলচ্চিত্রে পরীমনি নামে অভিষিক্ত হন। সম্প্রতি এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ তুলেন তিনি। বিষয়টি তুমুল আলোচনার জন্ম দেয়।

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ