শনিবার | ২ মার্চ ২০২৪
Cambrian

আর্সেনালের বিপক্ষে মাঠে নামতে প্রস্তুত লুকাকু

spot_img
spot_img
spot_img

ক্র্যাবনিউজ ডেস্ক
রবিবার আর্সেনালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে রোমেলু লুকাকু দ্বিতীয় মেয়াদে চেলসি অধ্যায় শুরু করতে যাচ্ছেন। এর আগে গত সপ্তাহে ৯৮ মিলিয়ন পাউন্ডের ক্লাব রেকর্ড চুক্তিতে বেলজিয়ান এই তারকা স্ট্রাইকারকে ইন্টার মিলান থেকে দলে ভিড়িয়েছে ব্লুজরা। এই ক্লাবের হয়ে লুকাকু নয় নম্বর জার্সি পড়ে মাঠে নামবেন।
২৮ বছর বয়সী লুকাকু কোয়ারেন্টাইানে থাকার কারনে শনিবার প্রিমিয়ার লিগের প্রথম ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে খেলতে পারেননি। কিন্তু বুধবার স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে সমর্থকদের উপস্থিতিতে উন্মুক্ত সেশনে নতুন সতীর্থদের সাথে লুকাকু অনুশীলন করেছেন। এমিরেটস স্টেডিয়ামে সপ্তাহের শেষে লন্ডন ডার্বিতে গানার্সদের বিপক্ষে তার মাঠে নামা প্রায় নিশ্চিত। আর্সেনালের বিপক্ষে মাঠে নামতে প্রস্তুত কিনা সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে লুকাকু বলেছেন, ‘অবশ্যই, আমি পূর্ণাঙ্গ অনুশীলন সেশনে ছিলাম। এই মুহূর্ত থেকে আমি সতীর্থদের আরো বেশী করে চেনার চেষ্টা করছি। এরপর আমি মাঠে নামবো কিনা তা পুরোপুরি কোচের উপর নির্ভর করছে।’
সাম্প্রতিক সময়ে চেলসির নয় নম্বর জার্সিটি খুব একটা সুখকর বার্তা দিতে পারেনি। গঞ্জালো হিগুয়েইন, ফার্নান্দো তোরেস, আলভারো মোরাতা, রাদামেল ফ্যালকাও এই জার্সি পড়ে দীর্ঘ সময় গোল খরায় ভুগেছেন। কিন্তু সপ্তাহের শুরুতে টামি আব্রাহাম রোমায় যোগ দেবার পর লুকাকুর পছন্দেই খালি হয়ে যাওয়া এই নম্বরের জার্সিটি তাকে উপহার দেয়া হয়েছে। এ সম্পর্কে লুকাকু বলেন, ‘হ্যাঁ আমি নয় নম্বর পেয়েছি। এই পরিস্থিতিতে এই জার্সিটি পাওয়াতে আমি খুবই খুশী ও সৌভাগ্যবান। আমার স্বপ্ন সত্যি হয়েছে, এখন মাঠে নিজেকে প্রমানের অপেক্ষায় আছি। নিজের সেরাটা দিয়েই আবারো এই ক্লাবকে সহযোগিতা করতে চাই। এখন নিজেকে ভালভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই মূল চ্যালেঞ্জ।’
প্রথম মেয়াদে ২০১১-১৪ সাল পর্যন্ত চেলসিতে তিন বছর কাটিয়েছেন লুকাকু। কিন্তু এভারটনে যাবার আগ পর্যন্ত খুব একটা খেলার সুযোগ পাননি। পশ্চিম লন্ডনে একজন অপরিচিত টিনএজার হিসেবে ১০ বছর আগে আসা এই বেলজিয়ান এখন বিশ্বের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। গত মৌসুমে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই স্ট্রাইকারের ২৭ গোল ও ১১ এসিস্টে ইন্টার মিলান জুভেন্টাসের আধিপত্য খর্ব করে সিরি-এ শিরোপা জয় করার কৃতিত্ব দেখায়।
ইন্টারে আসার আগে তিনি দুই বছরের জন্য ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেও খেলেছেন। কিন্তু সেই দলেও তিনি খুব এটা ভাল কিছু করে দেখাতে পারেননি। সে কারনেই ইংল্যান্ডের মাটিতে লুকাকুর সাফল্য নিয়ে শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। যদিও ইতালির সময়টাতে নিজেকে আমূল বদলে ফেলার দাবী জানিয়ে লুকাকু বলেছেন এখন তিনি সম্পূর্ণ ভিন্ন এক খেলোয়াড়। তিনি বলেন, ‘পরিনত হওয়াটা খুব জরুরী। আমি মনে করি নিজের সম্পর্কে আমি অনেক বেশী জেনেছি, নিজেকে একটি পর্যায়ে নিয়ে গেছি। একজন খেলোয়াড় হিসেবে পরিপূর্ণ হওয়াটা জরুরী। ইতালিতে খেলার ধরন সম্পূর্ণ ভিন্ন। সেখানে খেলতে হলে অনেক বেশী কৌশলী হতে হয়, এই বিষয়টা আমাকে এগিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে। ইংলিশদের ধারা আবার ভিন্ন। যদিও আমার কাছে খুব একটা নতুন কিছু মনে হচ্ছেনা। কোচের পরিকল্পনা যাই হোক না কেন তার সাথে মানিয়ে আমি দলকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত। আমি এমন একজন খেলোয়াড় যে কিনা সকলের সাথে মানিয়ে চলতে পারে। যে কারনে প্রত্যেকেই আমার সাথে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে। এতে তাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসও বাড়ে।’
চেলসি ও আইভরি কোস্টের কিংবদন্তী স্ট্রাইকার দিদিয়ের দ্রগবা লুকাকুর পরিবর্তনের পিছনে বড় ভূমিকা রেখেছেন। পরিবর্তনের যাত্রায় বেলজিয়ান তারকা দ্রগবার অনেক উপদেশ মানার চেষ্টা করেছেন। এ সম্পর্কে লুকাকু বলেন, ‘ তিনি আমার অনেক কিছুই সহজ করে দিয়েছেন। সত্যি কথা বলতে কি আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ। গত দুই মৌসুমে আমার এই উন্নতিতে দ্রগবা অনেক খুশী হয়েছেন। কিন্তু সাথে সাথে একথাও বলেছেন সবসময়ই কাজের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। আমি মনে করি এটাই সঠিক পন্থা। একজন ফুটবল খেলোয়াড় হিসেবে আমি সর্বোচ্চটা অর্জন করতে চাই। গত দুই বছর ক্লাব ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আমার ক্যারিয়ারের সেরা সময় ছিল। এখন আমি এমন একটি দলে যোগ দেবার সুযোগ পেয়েছি যাদের মধ্যে জয়ের ক্ষুধা রয়েছে। এই ক্লাবে নতুন কিছু যোগ করতে আমি মুখিয়ে আছি।’
ম্যানচেস্টার সিটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিতলেও জার্মান স্ট্রাইকার টিমো ওয়ার্নারের ব্যর্থতায় চেলসি বেশ কিছুদিন যাবত গোলখরায় ভুগেছে। এই জায়গা পূরনে কোচ থমাস টাচেলের আস্থার প্রতিদান দিতে আত্মবিশ্বাসী লুকাকু।

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ