শুক্রবার | ১ মার্চ ২০২৪
Cambrian

‘জীবনটা এখন হাহাকার’

spot_img
spot_img
spot_img

নিজস্ব প্রতিবেদক
‘আমার জীবনটা এখন হাহাকার। আমি কীভাবে বাঁচবো । আমার স্বামীকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই।’
বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বামী হত্যার বিচারের দাবিতে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনে (ক্র্যাব) এক সংবাদ সম্মেলনে এভাবেই কান্নায় ভেঙে পড়েন সদ্য স্বামীহারা চায়না আক্তার। তার বাড়ি জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার নয়ানগর ইউনিয়নের পূর্বদাগী গ্রামে। সেখানে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক সপ্তাহ আগে গত ২৬ জুলাই বিকেল ৫টার দিকে প্রকাশ্য দিবালোকে তার স্বামী কৃষক জাহাঙ্গির আলমকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শুধু তাই নয়, হত্যার পর জাহাঙ্গিরের মরদেহ থেকে মাংস ছুরি দিয়ে কেটে তা কুকুরকে খাইয়েছে ‌’চেনাজানা’ দুর্বৃত্তরা। তারা এখন মামলা তুলে নিতে বাদী চায়নাকে চাপ দিচ্ছেন। দিচ্ছেন জীবননাশের হুমকি।

চায়নার অভিযোগ, তার স্বামীকে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের হয়। মামলায় মোট ২২ জনকে আসামী করা হয়। এদের মধ্যে ৭ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তারা কারাগারে আছে। সেখানে বসেই মামলা তুলে নিতে নানান মাধ্যমে হুমকি দিচ্ছেন চায়নাকে। বলা হচ্ছে, মামলা তুলে না নিলে জামিনে বের হয়ে সন্তানসহ চায়নাকে পুড়িয়ে মারবে তারা। কারাগারে থাকাদের যে স্বজনরা বাইরে আছেন, তারাও হুমকি দিচ্ছেন, নানামুখী চাপ সৃষ্টি করছেন। স্বামীকে হারিয়ে মা-বাবা ও দায়িত্বশীল অভিভাবকহীন চায়না দুই শিশু সন্তান আব্দুর রহমান (১২) ও রকিবকে (৭) নিয়ে অসহায় অবস্থায় দিনতিপাত করছেন। ভুগছেন নিরাপত্তাহীনতায়। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছেন। একইসঙ্গে স্বামী হত্যার বিচার পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে চায়না আক্তার ও তার দুই শিশু সন্তান উপস্থিত ছিলেন।

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisement -spot_img

সর্বশেষ সংবাদ